স্বামী পূর্ণাত্মানন্দ

সভাপতি
রামকৃষ্ণ মিশন উচ্চ বিদ্যালয়, ঢাকা


স্বামী বিবেকানন্দের ‘মানুষ গড়ার শিক্ষা আমরা চাই’- এ আদর্শে ১৯১৪ সালে ৮নভেম্বর এ বিদ্যালয়টি প্রতিষ্ঠিত হয়। ১৯১৬ সালে ম্যাট্টিস্কুলেশন স্কুলের প্রথম থেকে তৃতীয় শ্রেণী পর্যন্ত খোলা হয়। বিদ্যালয়টি পরবর্তীতে অষ্টম শ্রেণীতে উন্নীত হয়। তারপর সময়ের চাহিদার প্রেক্ষাপটে ২০০৮ সালে রামকৃষ্ণ মিশন বিদ্যালয়টি উচ্চ বিদ্যালয়ে উন্নীত হয়। বিদ্যালয়টি ২০১২ সালে ঢাকা মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের স্বীকৃতি লাভ করে। এ বিদ্যালয়ে দেশের প্রচলিত শিক্ষা ব্যবস্থার পাশাপাশি নৈতিকতা ও চরিত্র গঠনের শিক্ষা লাভ করে শিক্ষার্থীরা নিজেদেরকে আদর্শ মানুষ হিসেবে গড়ে তোলার সুযোগ পায়।

আনন্দের বিষয়, ২০০৮ সালে বিদ্যালয়টি ঢাকা শিক্ষাবোর্ডের স্বীকৃতি লাভের পর থেকে অদ্যাবধি প্রতিবছর এস.এস.সি পরীক্ষায় বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা শতভাগ পাশ করে প্রতিষ্ঠানের সুনাম বৃদ্ধি করছে। এ বিদ্যালয় থেকে শিক্ষা লাভ করে অনেক শিক্ষার্থীরা দেশে-বিদেশে উচ্চ শিক্ষা অর্জন করছে এবং উচ্চ পদে কর্মরত আছে।

গত ২০১৪ সালে ৮নভেম্বর বিদ্যালয়ের শতবর্ষ পূর্তি উদ্যাপন হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের শিক্ষা সচিব জনাব মো: নজরুল ইসলাম খান, শিক্ষা মন্ত্রণালয় ও জাতীয় প্রকল্প পরিচালক, এ টু আই কর্মসূচী (দ্বিতীয় পর্যায়)।

জয়প্রকাশ সরকার

অধ্যক্ষ
রামকৃষ্ণ মিশন উচ্চ বিদ্যালয়, ঢাকা


স্বামী বিবেকানন্দের শিক্ষা দর্শনে শিক্ষা হলো "man-making education" অর্থাৎ মানুষ গড়ার শিক্ষা। শিক্ষার আদর্শ ও লক্ষ্য সমুন্নত রেখে স্বামীজীর মানবসেবার আদর্শে অনুপ্রানিত হয়ে ১৯১৪ সালের ৮ নভেম্বর প্রতিষ্ঠিত হয় ঢাকা রামকৃষ্ণ মিশন বিদ্যালয়। বিদ্যালয়টি তার নিজস্ব ঐতিহ্য বজায় রেখে জন্মলগ্ন থেকে শত শত জ্ঞানী, গুণী ও স্বনামধন্য মানবীয় গুণাবলী সম্পন্ন ছাত্র সৃষ্টির মাধ্যমে বিদ্যালয়টি সেবা কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে।